বদির পাশে দাঁড়িয়েই ইয়াবাকে ‘না’ বললেন ওবায়দুল কাদের!

0

মাদক তথা ইয়াবা ব্যবসায়ীরা সমাজের শত্রু, তারা রাষ্ট্রদ্রোহী- এ কথা উল্লেখ করে একে ‘না’ বলতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এ সময় তার পাশে হাসিমুখে দাঁড়ানো ছিলেন কক্সবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি, যার বিরুদ্ধে মাদক সম্পৃক্ততার অভিযোগ অনেক পুরনো।

মাদকের বিস্তারের বিষয়টি দুশ্চিন্তায় ফেলেছে সরকারকে। আর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মাদকের ‘গডফাদারদের’ একটি তালিকা ধরে সরকার কাজ করছে বলে জানিয়েছেন আইন শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতি আমির হোসেন আমু।

সোমবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের কক্সবাজার সফরে গিয়ে উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের পথসভায়ও মাদকের ভয়াবহতার বিষয়টি তুলে ধরে এ থেকে দূরে থাকার অনুরোধ করেছেন। সভায় কাদের বলেন, ‘ইয়াবা ব্যবসায়ীর দেশের শত্রু। ইয়াবাকে ‘না’ বলুন। ইয়াবার বিরুদ্ধে সর্বদলীয় প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। উখিয়া-টেকনাফের যুব সমাজকে ইয়াবার আগ্রাসন থেকে রক্ষা করতে হবে।’

এ সময় সড়ক মন্ত্রীর সঙ্গে সেখানে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার-৪ আসনের (টেকনাফ-উখিয়া) সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদিও। তার বিরুদ্ধে মাদক পাচারে মদদদানের অভিযোগ খোদ সরকারি সংস্থার প্রতিবেদনেও উঠে এসেছে। ২০১৪ সালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের করা ইয়াবা ব্যবসায়ীদের এক তালিকায় বলা হয়, বদির ছত্রছায়ায় আরও অনেকে ইয়াবা ব্যবসা করছেন। তার ভাই-বেয়াই, মামা-ভাগ্নে মিলিয়ে বদিসহ ১০ জন ইয়াবা ব্যবসায় জড়িত বলেও তালিকায় বলা হয়েছে। তবে বদি সব সময় মাদক পাচারে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন।

গত ২৪ ডিসেম্বর সীমান্তবর্তী এলাকার ৩৩ জন সংসদ সদস্যকে নিয়ে বিজিবির সদরদপ্তরে এক বৈঠক হয়। সেখানে মাদক পাচার ঠেকাতে সীমান্ত এলাকার সংসদ সদস্যদের নজর রাখার আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

ওবায়দুল কাদের এ সময় শেখ হাসিনার জন্য দোয়া কামনা করে স্থানীয় উন্নয়নে সরকারের অবদানের কথা তুলে ধরেন। বলেন, ‘কক্সবাজার-টেকনাফ আরকান সড়কের ১৪টি ব্রিজ আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে নির্মিত হয়েছে। শেখ হাসিনা আপনাদের ভাবাসেন। তাই উখিয়া-টেকনাফে অনেক উন্নয়ন হবে।’

কক্সবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কক্সবাজার আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল মোস্তফা, সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, আশেক উল্লাহ রফিক, প্রমুখ এ সময় বক্তব্য দেন। পথসভা পরিচালনা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মাহাবুব আলম মাবু।


এই ওয়েবসাইটের যাবতীয় লেখার বিষয়বস্তু, মতামত কিংবা মন্তব্য– লেখকের একান্তই নিজস্ব। ebizctg.com-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এর মিল আছে, এমন সিদ্ধান্তে আসার কোনো যৌক্তিকতাই নেই। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে ebizctg.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো প্রকার দায় বহন করে না।